বাঙ্গালীদের ৮ টি সেরা খিচুড়ি রান্নার রেসিপি

আমরা বাঙ্গালীদের ৮ টি সেরা খিচুড়ি রান্নার রেসিপি নিয়ে আসছি। যা হলো: সবজি খিচুড়ি, গরুর মাংসের ভুনা খিচুড়ি, মুরগির মাংসের ভুনা খিচুড়ি, ঝরঝরে মসুর ডালের খিচুড়ি, পাতলা খিচুড়ি, আচারি ভুনা খিচুড়ি, কারিপাতা ফোড়নে সবজি খিচুড়ি এবং পঞ্চপদী ডালের খিচুড়ি। আশা করি, আপনাদের ভালো লাগবে এই সব ঐতিহ্যবাহী খিচুড়ির রেসিপি গুলো।

বাঙ্গালীদের ৫ টি সেরা খিচুড়ির রেসিপি

তো চলুন একের পর এক ভিন্ন ভিন্ন খিচুড়ি রান্না করার রেসিপি গুলো জেনে নিই।

সবজি খিচুড়ি রান্নার রেসিপি

সবজি খিচুড়ি হলো একপ্রকার স্বাস্থ্যকর, পুষ্টিকর এবং সুস্বাদু খাবার, যা বাঙালির ঘরে খুবই জনপ্রিয়। এটি সহজে রান্না করা যায় এবং বিভিন্ন ধরনের সবজি দিয়ে সমৃদ্ধ করা যায়। যারা নিরামিষ ভোজী বা হালকা অথচ পুষ্টিকর খাবার খেতে পছন্দ করেন, তাদের জন্য সবজি খিচুড়ি একটি আদর্শ বিকল্প। চলুন, দেখে নিই কীভাবে সবজি খিচুড়ি রান্না করা যায়।

বাঙ্গালীদের ৫ টি সেরা খিচুড়ির রেসিপি

➪ উপকরণ

সবজি খিচুড়ি তৈরি করতে যা যা লাগবে:

  • - ১ কাপ বাসমতী বা গোবিন্দভোগ চাল
  • - ১/২ কাপ মুগ ডাল
  • - ২ টেবিল চামচ সরিষার তেল বা ঘি
  • - ১টি বড় পেঁয়াজ কুচি
  • - ২-৩টি কাঁচা মরিচ (ফালি করা)
  • - ১ টেবিল চামচ আদা বাটা
  • - ১ টেবিল চামচ রসুন বাটা
  • - ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ জিরা গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ ধনিয়া গুঁড়ো
  • - ২টি তেজপাতা
  • - ৩-৪টি এলাচ
  • - ২-৩টি দারুচিনি টুকরো
  • - ৪-৫টি লবঙ্গ
  • - লবণ স্বাদমতো
  • - ৪ কাপ পানি
  • - বিভিন্ন ধরনের সবজি (মটর, ফুলকপি, গাজর, আলু, বেগুন, শিম)
  • - ধনেপাতা কুচি (সাজানোর জন্য)
  • - ভাজা পেঁয়াজ (বেরেস্তা) সাজানোর জন্য

➪ রান্নার পদ্ধতি

একটি বড় পাত্রে তেল বা ঘি গরম করুন। গরম হলে তেজপাতা, এলাচ, দারুচিনি ও লবঙ্গ দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজুন। এরপর পেঁয়াজ কুচি দিয়ে পেঁয়াজ হালকা বাদামি হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। পেঁয়াজের সাথে আদা ও রসুন বাটা যোগ করুন এবং কাঁচা গন্ধ দূর হওয়া পর্যন্ত ভাজতে থাকুন। মশলাগুলো ভাজা হলে হলুদ গুঁড়ো, জিরা গুঁড়ো, এবং ধনিয়া গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার কাটা সবজি গুলো যোগ করে ভালো করে নাড়ুন। সবজি কিছুটা সেদ্ধ হয়ে এলে চাল ও মুগ ডাল মিশ্রণটি দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। ২-৩ মিনিট ভাজুন। এরপর ৪ কাপ পানি দিয়ে দিন এবং লবণ যোগ করুন। পানি ফুটে উঠলে আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। ২০-২৫ মিনিট মাঝারি আঁচে রান্না করুন। মাঝে মাঝে নাড়তে থাকুন যাতে নিচে লেগে না যায়। চাল ও ডাল সম্পূর্ণ সিদ্ধ হলে এবং খিচুড়ি ঝরঝরে হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন।
ধনেপাতা কুচি এবং ভাজা পেঁয়াজ ছড়িয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

গরুর মাংসের ভুনা খিচুড়ি রেসিপি

গরুর মাংসের ভুনা খিচুড়ি একটি প্রিয় ও জনপ্রিয় বাঙালি খাবার। এটি মূলত একটি পুষ্টিকর এবং সুস্বাদু খাবার যা বিশেষ করে উৎসব বা পারিবারিক অনুষ্ঠানে পরিবেশন করা হয়। গরুর মাংসের ভুনা খিচুড়ির রেসিপিটি একটু জটিল মনে হতে পারে, তবে সঠিক নির্দেশনা অনুসরণ করলে এটি সহজেই রান্না করা যায়। চলুন, দেখে নিই কীভাবে গরুর মাংসের ভুনা খিচুড়ি রান্না করা যায়।

বাঙ্গালীদের ৫ টি সেরা খিচুড়ির রেসিপি

➪ উপকরণ

গরুর মাংসের ভুনা খিচুড়ি তৈরি করতে যা যা লাগবে:

  • - ১ কাপ বাসমতী বা গোবিন্দভোগ চাল
  • - ১/২ কাপ মুগ ডাল
  • - ৫০০ গ্রাম গরুর মাংস (ছোট টুকরো করা)
  • - ২ টেবিল চামচ সরিষার তেল বা ঘি
  • - ২টি বড় পেঁয়াজ কুচি
  • - ৪-৫টি কাঁচা মরিচ (ফালি করা)
  • - ১ টেবিল চামচ আদা বাটা
  • - ১ টেবিল চামচ রসুন বাটা
  • - ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ জিরা গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ ধনিয়া গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ গরম মসলা গুঁড়ো
  • - ২টি তেজপাতা
  • - ৩-৪টি এলাচ
  • - ২-৩টি দারুচিনি টুকরো
  • - ৪-৫টি লবঙ্গ
  • - লবণ স্বাদমতো
  • - ৪ কাপ পানি
  • - ধনেপাতা কুচি (সাজানোর জন্য)
  • - ভাজা পেঁয়াজ (বেরেস্তা) সাজানোর জন্য

➪ রান্নার পদ্ধতি

একটি বড় পাত্রে তেল বা ঘি গরম করুন। গরম হলে তেজপাতা, এলাচ, দারুচিনি ও লবঙ্গ দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজুন। এরপর পেঁয়াজ কুচি দিয়ে পেঁয়াজ হালকা বাদামি হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। পেঁয়াজের সাথে আদা ও রসুন বাটা যোগ করুন এবং কাঁচা গন্ধ দূর হওয়া পর্যন্ত ভাজতে থাকুন। মশলাগুলো ভাজা হলে হলুদ গুঁড়ো, জিরা গুঁড়ো, ধনিয়া গুঁড়ো এবং গরম মসলা গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর গরুর মাংস যোগ করে ভালো করে নাড়ুন। মাংসের রঙ পরিবর্তন হওয়া এবং পানি ছেড়ে যাওয়া পর্যন্ত ভাজতে থাকুন। মাংসের সাথে চাল ও মুগ ডাল মিশ্রণটি যোগ করুন এবং ভালো করে মিশিয়ে নিন। ২-৩ মিনিট ভাজুন। এবার ৪ কাপ পানি দিয়ে দিন এবং লবণ যোগ করুন। পানি ফুটে উঠলে আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। ২০-২৫ মিনিট মাঝারি আঁচে রান্না করুন। মাঝে মাঝে নাড়তে থাকুন যাতে নিচে লেগে না যায়। চাল ও ডাল সম্পূর্ণ সিদ্ধ হলে এবং খিচুড়ি ঝরঝরে হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। ধনেপাতা কুচি এবং ভাজা পেঁয়াজ ছড়িয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

মুরগির মাংসের ভুনা খিচুড়ি রেসিপি

মুরগির মাংসের ভুনা খিচুড়ি বাঙালিদের অন্যতম প্রিয় একটি খাবার। এর অনন্য স্বাদ এবং সুগন্ধ যে কোনো ভোজনরসিকের মন জয় করতে পারে। বিশেষ করে বর্ষাকালে অথবা উৎসবের সময় এটি বানানো হয়। এই রেসিপিতে মুরগির মাংস এবং খিচুড়ির মিশ্রণে তৈরি হয় এক অসাধারণ স্বাদের খাবার। চলুন, দেখে নিই কীভাবে মুরগির মাংসের ভুনা খিচুড়ি রান্না করা যায়।
বাঙ্গালীদের ৫ টি সেরা খিচুড়ির রেসিপি

➪ উপকরণ

মুরগির মাংসের ভুনা খিচুড়ি তৈরি করতে যা যা লাগবে:

  • - ১ কাপ বাসমতী বা গোবিন্দভোগ চাল
  • - ১/২ কাপ মুগ ডাল
  • - ৫০০ গ্রাম মুরগির মাংস (ছোট টুকরো করা)
  • - ২ টেবিল চামচ সরিষার তেল বা ঘি
  • - ২টি বড় পেঁয়াজ কুচি
  • - ৪-৫টি কাঁচা মরিচ (ফালি করা)
  • - ১ টেবিল চামচ আদা বাটা
  • - ১ টেবিল চামচ রসুন বাটা
  • - ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ জিরা গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ ধনিয়া গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ গরম মসলা গুঁড়ো
  • - ২টি তেজপাতা
  • - ৩-৪টি এলাচ
  • - ২-৩টি দারুচিনি টুকরো
  • - ৪-৫টি লবঙ্গ
  • - লবণ স্বাদমতো
  • - ৪ কাপ পানি
  • - ধনেপাতা কুচি (সাজানোর জন্য)
  • - ভাজা পেঁয়াজ (বেরেস্তা) সাজানোর জন্য

➪ রান্নার পদ্ধতি

একটি বড় পাত্রে তেল বা ঘি গরম করুন। গরম হলে তেজপাতা, এলাচ, দারুচিনি ও লবঙ্গ দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজুন। এরপর পেঁয়াজ কুচি দিয়ে পেঁয়াজ হালকা বাদামি হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। পেঁয়াজের সাথে আদা ও রসুন বাটা যোগ করুন এবং কাঁচা গন্ধ দূর হওয়া পর্যন্ত ভাজতে থাকুন। মশলাগুলো ভাজা হলে হলুদ গুঁড়ো, জিরা গুঁড়ো, ধনিয়া গুঁড়ো এবং গরম মসলা গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর মুরগির মাংস যোগ করে ভালো করে নাড়ুন। মুরগির মাংসের রঙ পরিবর্তন হওয়া এবং পানি ছেড়ে যাওয়া পর্যন্ত ভাজতে থাকুন।
মুরগির মাংসের সাথে চাল ও মুগ ডাল মিশ্রণটি যোগ করুন এবং ভালো করে মিশিয়ে নিন। ২-৩ মিনিট ভাজুন। এবার ৪ কাপ পানি দিয়ে দিন এবং লবণ যোগ করুন। পানি ফুটে উঠলে আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। ২০-২৫ মিনিট মাঝারি আঁচে রান্না করুন। মাঝে মাঝে নাড়তে থাকুন যাতে নিচে লেগে না যায়। চাল ও ডাল সম্পূর্ণ সিদ্ধ হলে এবং খিচুড়ি ঝরঝরে হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। ধনেপাতা কুচি এবং ভাজা পেঁয়াজ ছড়িয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

ঝরঝরে মসুর ডালের খিচুড়ি রান্নার রেসিপি

খিচুড়ি বাংলার ঐতিহ্যবাহী এক জনপ্রিয় খাদ্য। এর মধ্যে মসুর ডালের খিচুড়ি সহজে রান্না করা যায় এবং এটি খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু। ঝরঝরে মসুর ডালের খিচুড়ি বিশেষত সেই সমস্ত দিনগুলোতে জনপ্রিয়, যখন কিছু হালকা কিন্তু পুষ্টিকর খাবারের প্রয়োজন হয়। চলুন, দেখে নিই ঝরঝরে মসুর ডালের খিচুড়ির একটি সহজ রেসিপি।

বাঙ্গালীদের ৫ টি সেরা খিচুড়ির রেসিপি

➪ উপকরণ

মসুর ডালের খিচুড়ি তৈরি করতে যা যা লাগবে:

  • - ১ কাপ গোবিন্দভোগ বা বাসমতী চাল
  • - ১/২ কাপ মসুর ডাল
  • - ২ টেবিল চামচ সরিষার তেল বা ঘি
  • - ১টি বড় পেঁয়াজ কুচি
  • - ২-৩টি কাঁচা মরিচ (ফালি করা)
  • - ১ টেবিল চামচ আদা বাটা
  • - ১ টেবিল চামচ রসুন বাটা
  • - ১টি তেজপাতা
  • - ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ জিরা গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ ধনিয়া গুঁড়ো
  • - লবণ স্বাদমতো
  • - ৩-৪ কাপ পানি
  • - ১/২ চা চামচ গরম মসলা গুঁড়ো (ঐচ্ছিক)
  • - ধনেপাতা কুচি (সাজানোর জন্য)

➪ রান্নার পদ্ধতি

একটি বড় পাত্রে সরিষার তেল বা ঘি গরম করুন। গরম হলে তেজপাতা এবং কাঁচা মরিচ দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজুন। এরপর পেঁয়াজ কুচি দিয়ে পেঁয়াজ হালকা বাদামি হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। পেঁয়াজের সাথে আদা ও রসুন বাটা যোগ করুন এবং কাঁচা গন্ধ দূর হওয়া পর্যন্ত ভাজতে থাকুন। মশলাগুলো ভাজা হলে হলুদ গুঁড়ো, জিরা গুঁড়ো, এবং ধনিয়া গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। চাল ও মসুর ডাল মিশ্রণটি দিয়ে ভালো করে নাড়ুন যাতে মশলাগুলো চাল ও ডালে মিশে যায়। ২-৩ মিনিট ভাজুন। এবার ৩-৪ কাপ পানি দিয়ে দিন এবং লবণ যোগ করুন। পানি ফুটে উঠলে আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। ১৫-২০ মিনিট মাঝারি আঁচে রান্না করুন। মাঝে মাঝে নাড়তে থাকুন যাতে নিচে লেগে না যায়। চাল ও ডাল সম্পূর্ণ সিদ্ধ হলে এবং খিচুড়ি ঝরঝরে হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। চাইলে এই সময়ে গরম মসলা গুঁড়ো যোগ করতে পারেন। ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

পাতলা খিচুড়ি রেসিপি

বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের একটি প্রচলিত এবং প্রিয় খাবার হলো খিচুড়ি। খিচুড়ি সাধারণত অনেক রকম হয়, তবে পাতলা খিচুড়ি তার সাদামাটা অথচ সুস্বাদু স্বাদের জন্য খুবই জনপ্রিয়। এটি সহজেই হজম হয় এবং অসুস্থ অবস্থায়ও খাবার উপযোগী। আজ আমরা পাতলা খিচুড়ির একটি সহজ রেসিপি শেয়ার করব।

বাঙ্গালীদের ৫ টি সেরা খিচুড়ির রেসিপি

➪ উপকরণ

পাতলা খিচুড়ি তৈরি করতে যা যা লাগবে:

  • - ১ কাপ গোবিন্দভোগ চাল
  • - ১/২ কাপ মসুর ডাল
  • - ১/৪ কাপ মুগ ডাল
  • - ২ টেবিল চামচ ঘি
  • - ১ টেবিল চামচ সরিষার তেল
  • - ১টি পেঁয়াজ কুচি
  • - ২-৩টি কাঁচা মরিচ (ফালি করা)
  • - ১ টেবিল চামচ আদা বাটা
  • - ১ টেবিল চামচ রসুন বাটা
  • - ১টি তেজপাতা
  • - ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ জিরা গুঁড়ো
  • - ১ চা চামচ ধনিয়া গুঁড়ো
  • - লবণ স্বাদমতো
  • - ৬-৭ কাপ পানি
  • - ধনেপাতা কুচি (সাজানোর জন্য)

➪ রান্নার পদ্ধতি

একটি বড় পাত্রে ঘি ও সরিষার তেল গরম করুন। গরম হলে তেজপাতা এবং কাঁচা মরিচ দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজুন। এরপর পেঁয়াজ কুচি দিয়ে পেঁয়াজ হালকা বাদামি হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। পেঁয়াজের সাথে আদা ও রসুন বাটা দিয়ে মিশিয়ে নিন এবং কাঁচা গন্ধ দূর হওয়া পর্যন্ত ভাজতে থাকুন। মশলাগুলো ভাজা হলে হলুদ গুঁড়ো, জিরা গুঁড়ো, এবং ধনিয়া গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর চাল ও ডাল মিশ্রণটি দিয়ে ভালো করে নাড়ুন যাতে মশলাগুলো চাল ও ডালে মিশে যায়। ২-৩ মিনিট ভাজুন। এবার ৬-৭ কাপ পানি দিয়ে দিন এবং লবণ যোগ করুন। পানি ফুটে উঠলে আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। ২০-২৫ মিনিট মাঝারি আঁচে রান্না করুন। মাঝে মাঝে নাড়তে থাকুন যাতে নিচে লেগে না যায়। চাল ও ডাল সম্পূর্ণ সিদ্ধ হলে এবং খিচুড়ি পাতলা হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন।
ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

আচারি ভুনা খিচুড়ি

আচারি ভুনা খিচুড়ি বাংলার ঐতিহ্যবাহী খিচুড়ি। এই খিচুড়ি দেখতে যেমন সুন্দর তার থেকেও বেশি খেতে সুস্বাদু। আর যদি বৃষ্টির দিনে এই খিচুড়ি গরম গরম খান তাহলে আপনার কাছে এটাই হবে শ্রেষ্ট উপভোগ্য সময়।
বাঙ্গালীদের ৫ টি সেরা খিচুড়ি রান্নার রেসিপি

➪ উপকরণ: 

  • পোলাওয়ের চাল ৩ কাপ,
  • মুগ ডাল দেড় কাপ,
  • শর্ষের তেল আধা কাপ,
  • পেঁয়াজকুচি ১ কাপ,
  • আদাকুচি ১ টেবিল চামচ,
  • টমেটোকুচি আধা কাপ,
  • থেঁতলানো রসুন ৭–৮টি কোয়া,
  • এলাচি ৪টি,
  • লবঙ্গ ২টি,
  • তেজপাতা ২টি,
  • দারুচিনি ২টি,
  • রসুনবাটা ১ টেবিল চামচ,
  • আদাবাটা ১ টেবিল চামচ,
  • হলুদ ১ চা-চামচ,
  • মরিচগুঁড়া আধা চা-চামচ,
  • জিরাগুঁড়া ১ চা-চামচ,
  • ধনেগুঁড়া ১ চা-চামচ,
  • আস্ত জিরা ১ চা-চামচ ফোড়নের জন্য,
  • আস্ত শর্ষে ১ চা-চামচ ফোড়নের জন্য,
  • আস্ত লাল মরিচ ৩টি,
  • যেকোনো আচার ৩ টেবিল চামচ,
  • লবণ স্বাদমতো,
  • কাঁচা মরিচ ৮-১০টি,
  • গরম পানি ৮ কাপ।

➪ রান্নার পদ্ধতি :

মুগ ডাল সামান্য ভেজে নিন। ডালের রং একটু পরিবর্তন হলে নামিয়ে নিন। ১ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখা ডাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। হাঁড়িতে তেল গরম করে আস্ত শর্ষে, জিরা ও আস্ত মরিচের ফোড়ন দিন। এবার থেঁতলানো রসুন, পেঁয়াজকুচি, আদাকুচি ও গরমমসলা কিছুক্ষণ ভেজে নিন। পেঁয়াজে বাদামি রং চলে এলে আদা ও রসুনবাটা দিয়ে দিন। একটু নেড়ে সব গুঁড়া মসলা ও লবণ দিয়ে দিন। মসলা ভালো করে কষিয়ে চাল ও ডাল দিয়ে দিন। চাল ও ডাল ভালো করে নেড়েচেড়ে ভাজুন। ফুটন্ত গরম পানি দিন। বলক উঠলে আস্ত কাঁচা মরিচ ও আচার দিন। মাঝারি আঁচে ৫ মিনিটের জন্য ঢেকে দিন। ৫ মিনিট পর ঢাকনা তুলে নেড়েচেড়ে আবার ৫ মিনিটের জন্য দমে রাখুন। নামিয়ে গরম-গরম পরিবেশন করুন।

কারিপাতা ফোড়নে সবজি খিচুড়ি

এই খিচুড়িতে এক ধরনের অন্য রকম স্বাদ আছে। যা এই খিচুড়ির উপকরণ এর জাদু। কারণ এতে আসে কারিপাতা সহ নানা রকমের সবজি। এই খিচুড়ি যেমন খেতে সুন্দর তেমনি পুষ্টিগুণ ও অসাধারণ।
বাঙ্গালীদের ৫ টি সেরা খিচুড়ি রান্নার রেসিপি

➪ উপকরণ: 

  • পোলাওয়ের চালের খুদ ২ কাপ,
  • মসুর ডাল ১ কাপ;
  • আলু,
  • ফুলকপি,
  • গাজর কিউব কাট করে কাটা ও মটরশুঁটি মিলিয়ে দেড় কাপ;
  • তেল আধা কাপ,
  • পেঁয়াজকুচি ১ কাপ,
  • আদাকুচি ১ টেবিল চামচ,
  • এলাচি ৪টি,
  • লবঙ্গ ২টি,
  • তেজপাতা ২টি,
  • দারুচিনি ২টি,
  • রসুনবাটা ১ টেবিল চামচ,
  • আদাবাটা ১ টেবিল চামচ,
  • হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ,
  • মরিচগুঁড়া আধা চা-চামচ,
  • জিরাগুঁড়া আধা চা-চামচ,
  • ধনেগুঁড়া আধা চা-চামচ,
  • আস্ত জিরা ১ চা-চামচ ফোড়নের জন্য,
  • কারিপাতা ফোড়নের জন্য,
  • আস্ত লাল মরিচ ৩টি,
  • লবণ স্বাদমতো,
  • কাঁচা মরিচ ৮-১০টি,
  • গরম পানি ৫ কাপ।

➪ রান্নার পদ্ধতি

মসুর ডাল ১ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। এবার ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। চাল ধুয়ে চালনির মধ্যে নিয়ে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। হাঁড়িতে তেল গরম করে আস্ত জিরা ও আস্ত মরিচের ফোড়ন ও কারিপাতা দিন। পেঁয়াজকুচি, আদাকুচি ও গরমমসলা কিছুক্ষণ ভেজে নিন। পেঁয়াজে বাদামি রং চলে এলে আদা ও রসুনবাটা, টমেটোকুচি ও সবজি দিয়ে একটু নেড়ে নিন। সব গুঁড়া মসলা ও লবণ দিয়ে দিন। মসলা একটু পানি দিয়ে নাড়তে থাকুন। মসলায় চাল, ডাল দিয়ে দিন। ভালো করে নেড়েচেড়ে ভাজুন। ফুটন্ত গরম পানি ঢেলে দিন। বলক চলে এলে আস্ত কাঁচা মরিচ দিন। পানি টেনে এলে অল্প আঁচে ৫ মিনিটের জন্য ঢেকে দিন। নামিয়ে গরম-গরম পরিবেশন করুন খিচুড়ি।

পঞ্চপদী ডালের খিচুড়ি

পাঁচ ধরনের ডাল দিয়ে এই খিচুড়ি রান্না করা হয়।তাই এটি পঞ্চপদী ডালের খিচুড়ি নামে পরিচিত। বৃষ্টির দিন এই খিচুড়ি এক অন্য রকম আমেজ তৈরি করে। 
বাঙ্গালীদের ৫ টি সেরা খিচুড়ি রান্নার রেসিপি

➪ উপকরণ: 

  • বাঁশফুল চাল–পছন্দমতো ভাতের চাল ২ কাপ,
  • মসুর ডাল,
  • মুগ ডাল,
  • মাষকলাই,
  • ছোলার ডাল,
  • অড়হর ডাল দেড় কাপ,
  • আদাবাটা ১ টেবিল চামচ,
  • রসুনবাটা ১ টেবিল চামচ,
  • হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ,
  • মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ,
  • কাঁচা মরিচ ৪–৫টি,
  • এলাচি ৩টি,
  • দারুচিনি ২টি,
  • তেল সিকি কাপ,
  • লবণ স্বাদমতো,
  • টমেটোকুচি আধা কাপ,
  • গরম পানি ১০ কাপ।

➪ বাগাড়ের জন্য উপকরণ: 

  • ঘি ২ টেবিল চামচ,
  • আস্ত জিরা আধা চা-চামচ,
  • পেঁয়াজকুচি ৩ টেবিল চামচ,
  • আদাকুচি ১ টেবিল চামচ,
  • শুকনা মরিচ ২টি,
  • লাল মরিচগুঁড়া সিকি চা-চামচ।

➪ রান্নার পদ্ধতি

চাল ও ডাল একসঙ্গে ২ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। ২ ঘণ্টা পর চাল, ডাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। পাত্রে তেল গরম করে পেঁয়াজ ও গরমমসলা নিন। আদা ও রসুনবাটা দিয়ে সামান্য ভেজে নিন। টমেটোকুচি দিয়ে দিন। এবার চাল ও ডাল দিয়ে একটু ভেজে পানি দিয়ে ঢেকে দিন। কয়েকটি কাঁচা মরিচ দিয়ে প্রথমে মাঝারি ও পরে মৃদু আঁচে রান্না করুন ৫ মিনিট। অন্য চুলায় ফ্রাইপ্যানে ঘি দিয়ে দিন। আস্ত জিরা ও শুকনা মরিচ দিয়ে ভেজে নিন। পেঁয়াজ, আদাকুচি ভেজে নিন। ভাজা গন্ধ বের হলে সামান্য লাল মরিচগুঁড়া দিন। রান্না করা খিচুড়িতে ঢেলে দিয়ে ২–৩ মিনিট ঢেকে রাখুন। নামিয়ে গরম-গরম পরিবেশন করুন।

শেষ কথা ➡️ এই আমরা আপনাদের সামনে উপস্থাপন করেছি; বাঙ্গালীদের ৮ টি সেরা খিচুড়ি রান্নার রেসিপি। খিচুড়ি রান্নার রেসিপি গুলো খুব জনপ্রিয় যা আপনার ভালো লাগবে। আপনার মতামত এবং প্রতিক্রিয়া অত্যন্ত মূল্যবান এবং আমরা সব সময় তাদের স্বাগত জানাই। এই রকম আরো পোস্ট চাইলে কমেন্ট করে আমাদের জানান। আবার আপনার সাথে দেখা হবে পরবর্তী পোস্টে। ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

আমার জীবন বিডিতে নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন, প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url